শাকিব একজন ভালো মনের মানুষ: অপু বিশ্বাস

‘শাকিব একজন ভালো মনের মানুষ।’-বললেন বাংলাদেশি ছবির নায়িকা অপু বিশ্বাসের ছেলে আব্রাম খানের জন্মদিন ছিল। এবার ছেলের জন্মদিনে শাকিব খানের বাসায় বেশ খানিকটা সময় কাটিয়েছেন অপু বিশ্বাস। নায়ক শাকিব খান ও নায়িকা অপু বিশ্বাসের ছেলে আব্রাম খানের জন্মদিন ছিল গত মঙ্গলবার।

শাকিবের সঙ্গে কথা হয়েছে কি না সেই প্রসঙ্গে অপু বলেন, ‘আমরা তো বোবা নই। কথা তো টুকটাক হয়।‘শাকিব একজন ভালো মনের মানুষ।’

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শাকিব খানের বাসায় কেক কাটে আব্রাম খান। সেখানে মা অপু বিশ্বাসও যান। আব্রাম তার বাবা শাকিব খান, দাদা-দাদি, ফুফু ও ফুফুর ছেলে-মেয়ের সঙ্গে কেক কাটে। কেক কাটার অনুষ্ঠানের কয়েকটি স্থিরচিত্র অপু বিশ্বাস তার ফেসবুক পেজে শেয়ার করে লিখেছেন, ‘সুখী পরিবারের কিছু মুহূর্ত, আমাদের জন্য সবাই দোয়া করবেন।’

মঙ্গলবার গভীর রাতে ফেসবুকে ছবিগুলো শেয়ার করা হলেও সঙ্গে সঙ্গে তা ছড়িয়ে পড়ে। বুধবার দিনভর দুই তারকার ভক্তরা তাঁদের ফেসবুকে শেয়ার করেছেন ছবিগুলো। অপু জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় একটা অনুষ্ঠান ছিল। অনুষ্ঠানে শেষ করে আব্রামের দাদার বাড়িতে গিয়েছিলেন তিনি। বলেন, ‘আব্রামের দাদার বাড়িতে গিয়ে দেখি, তাঁর ফুফু আয়োজন করেছেন। তারপর আমরা সবাই আব্রামকে নিয়ে কেক কাটি।’

অপু আরও বলেন, ‘এখন দাদা-দাদি ছাড়া কিছুই বোঝে না আব্রাম। অনেক দিন আমার বাসায় থাকলেও এখন দাদার বাড়িই যেন তার আপন বাড়ি হয়ে গেছে। দাদা বলতে সে পাগল। দাদাও আব্রাম ছাড়া যেন থাকতে পারেন না। দুজনের দারুণ সম্পর্ক।’

২০১৭ সালে বিচ্ছেদের পর ছেলের এবারের জন্মদিনে এক জায়গায় কেক কাটতে দেখা গেল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসকে। আর কেক কাটার স্থিরচিত্র অপু বিশ্বাসও তাঁর ফেসবুকে পোস্ট করেন, আলাদা কয়েকটি ছবিতে শাকিব খানকেও দেখা গেছে।
এদিকে বুধবার ভাই, ভাবি ও ছেলে আব্রামকে নিয়ে সন্ধ্যায় কলকাতায় উড়াল দিয়েছেন অপু বিশ্বাস। যাওয়ার আগে বিমানবন্দর থেকে অপু বলেন, ‘সামনে পূজা। বাবা-মায়ের জন্য পিণ্ডি দেব ওখানে। তা ছাড়া দেখলাম, বাবুর (আব্রাম) স্কুল ছুটি আছে। এ জন্য কিছুদিনের জন্য কলকাতায় যাচ্ছি।’

৩০ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাচ্ছে ‘ঈশা খাঁ’ ছবিটি। কিন্তু কলকাতা থেকে দেশে ফিরবেন আগামী ১২ অক্টোবর। তাই মুক্তির সময় থাকতে পারছেন না ছবির নায়িকা অপু বিশ্বাস।

এ ব্যাপারে অপু বলেন, ‘মুক্তির সময় থাকতে পারলাম না, অসম্ভব খারাপ লাগছে। তবে ভীষণভাবে থাকার ইচ্ছা ছিল। ডি এ তায়েব ভাইয়ের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে, দেশে ফিরেই আমরা একসঙ্গে ঢাকা ও ঢাকার বাইরে হল ভিজিট করব। দর্শকদের সঙ্গে সিনেমাটি দেখব।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *