পূজার প্রস্তুতি আজ থেকেই

পূজার বাকি মাত্র কয়েকদিন। আমরা কেন পিছিয়ে থাকি, এখন থেকেই ত্বকের যত্ন না নিলে পূজার সময়টাতে নিজেকে কী করে আকর্ষণীয় করে সাজাবো? তাই প্রস্তুতি আজ থেকেই শুধুই প্রাকৃতিক পণ্যে।

প্রাকৃতিক পণ্য ব্যবহারেই আমাদের ত্বকের নিস্তেজ ও শুষ্কভাব দূর হবে এবং ত্বক থাকবে স্বাস্থ্যকর, উজ্জ্বল ও কোমল।
পূজা সামনে রেখে খুব সহজ কিছু হার্বাল দিয়ে সব সময় কীভাবে ত্বকের যত্ন নেবেন, জেনে নিন বিউটি এক্সপার্ট ফারনাজ আলমের কাছে।
একগ্লাস পানিতে এক টেবিল চামচ মধু মিলিয়ে প্রতিদিন সকালে খেলে ত্বক কোমল, মসৃণ এবং উজ্জ্বল হবে
পেঁপে, মুশুরের ডাল, বেসন, শসার রস এগুলো থেকে একটু নিয়ে ত্বকে মেখে কিছুক্ষণ পর ধুয়ে নিন। ত্বকের ময়লা ও শুষ্কভাব দূর হয়ে ত্বক থাকবে সজিব ও কোমল।

সূর্যের অতি বেগুনী রশ্মি ত্বক পুড়িয়ে ফেলে। শসা ও গোলাপ জলের মিশ্রণ রোদে পোড়া ত্বকের জন্যে উপকারী। রোদে যাওয়ার আগে এবং বাসায় ফিরে এগুলো একসঙ্গে মিশিয়ে মাখলে ত্বক উজ্জ্বল থাকবে।
চন্দন গুঁড়ায় গোলাপ জল এবং সামান্য দুধ দিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখ এবং পুরো শরীরে মেখে ১৫ মিনিট পর হালকা গরম পানিতে গোসল করুন

মধু গরম করে লেবুর রস দিয়ে মুখে মেখে কিছুক্ষণ পর ধুয়ে নিন
হলুদ চন্দন গুঁড়া এবং ওলিভ ওয়েলের পেস্ট ১০ মিনিট ত্বকে মেখে রাখুন
দুধে মশ্চারাইজার থাকে, নিয়মিত মুখে মাখুন, ত্বক কোমল হবে
চন্দন গুঁড়ার সঙ্গে সামান্য হলুদ গুঁড়া ও দুধ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। পেস্টটি মুখে লাগিয়ে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। ত্বক সতেজ আর সুন্দর করতে এই মিশ্রণটি বেশ কার্যকর।

ত্বক কালো হয়ে গেলে, হারানো রং ফিরে পেতে শশা এবং টমেটার রস সমান পরিমাণে নিয়ে মুখ হাত ও গলায় মেখে ১৫ মিনিট রাখুন
দই এবং ময়দা মিশিয়ে মাখলেও ত্বকের কালো ছোপ তুলতে সাহায্য করে।
ত্বকে সরিষার তেল ম্যাসাজ করে ময়দা মেখে ধুয়ে নিন।

অনেকের ত্বকের বিভিন্ন স্থানে অবাঞ্চিত লোম থাকে। যা মুখের স্বাভাবিক সৌন্দর্য নষ্ট করে। হলুদের গুঁড়া, ময়দা ও তিলের তেল একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখে মাখুন। এই মিশ্রণটি আপনার ত্বককে অনাকাঙ্ক্ষিত লোমের হাত থেকে দূরে রাখবে।
সুস্থ ও সুন্দর থাকতে বেশি পরিমাণে ভিটামিন এ এবং সি সমৃদ্ধ খাবার খান।
প্রতিদিন অন্তত ১০ গ্লাস পানি পান করুন। ত্বক ভেতর থেকে সুস্থ ও সুন্দর থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.